বৃহস্পতিবার, জুন ১৭, ২০২১
Home feature দামে কম মানে ভালো!

দামে কম মানে ভালো!

৪৪৬ Views

প্রত্যয় চৌধুরী
স্ট্যানলি কুব্রিকের ‘দ্য শাইনিং’ (১৯৮০) চলচ্চিত্রের সেই দৃশ্যের কথা মনে আছে, যেখানে হোটেল করিডোরে ড্যানি চরিত্রটি ছোট্ট একটি সাইকেলে করে এদিক ওদিক ঢুঁ মারছে? কিছুক্ষণ পরেই করিডোর দিয়ে বামদিকে বাঁক নিতে করিডোরের শেষ প্রান্তে সে দেখতে পায় রহস্যময়ী দুই যমজ বোনকে যারা ওকে ডাকছে আর ক্রমাগত বলছে, “ড্যানি… কাম প্লে উইথ আস… কাম প্লে উইথ আস… ফরএভার…অ্যান্ড এভার…অ্যান্ড এভার…।”

কি ভয়ানক সেই দৃশ্য! শিশু মনের মনস্তত্ত্বে অভিঘাত সৃষ্টি করার জন্য এর চেয়ে যুগান্তকারী হাড় হিম করা দৃশ্য আর হতে পারে না। একই কথার ক্রমাগত অনুনাদের ফলে যে এক ভয়ের, অসহ্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়, তার শ্রেষ্ঠ উপমা দৃশ্যটি।

সম্প্রতি নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এমনই এক দৃশ্য। না কোনও হরর ছবির দৃশ্য না। একটি প্রোডাক্টের বিজ্ঞাপনের অংশ বিশেষ। যেখানে দুটি মেয়ে (হুবহু যমজ) দুটি আলাদা আলাদা ইজি চেয়ারে দুলতে দুলতে ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে বলছে, “দামে কম, মানে ভালো, কাকলি ফার্নিচার!” বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে বারবার একাধিক শটে এই ডায়ালগটি রয়েছে। কখনও দেখা যাচ্ছে বাচ্চা মেয়ে দুটি সোফার উপর লম্ফঝম্ফ করছে, আবার কখনও ইজি চেয়ারে বসে দুলেই যাচ্ছে। আর অডিও স্কেপে প্রতিধ্বনি সৃষ্টি করছে বিজ্ঞাপনের সাড়া জাগানো ট্যাগলাইন। এই দৃশ্য দেখে আপনি হয়ত ভয়ে শিউরে উঠবেন না। টেনশনে বালিশ খামচে ধরবেন না অথবা দাঁতেও নখ কাটবেন না। কিন্তু আপনার মনে হবে “কেন?” আপনি চাইলে অট্টহাসি হাসতে পারেন, আবার বিরক্ত হয়ে নিজের উপর হাল ছেড়ে দিতে পারেন; কিন্তু ভিডিও শেষ না করে স্ক্রিন ছেড়ে উঠতে পারবেন না।

এ তো গেল ওই বিজ্ঞাপনের ভিডিওটির মাঝের অংশ বিশেষ। পুরো ভিডিওটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত দেখলে আপনিও প্রোডাক্টটির গুণমানের উপর ভরসা না করে পারবেন না। সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন বৃত্তে ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে বাংলাদেশের মৌনা চৌরাস্তা, শ্রীপুর রোডের বিখ্যাত ব্র্যান্ড, ‘কাকলি ফার্নিচার’। ছড়িয়ে পড়েছে বিভিন্ন স্বাদের একাধিক মিম। রাজনৈতিক নেতা থেকে সেলেব সবার সাথেই জুড়ে দেওয়া হচ্ছে কাকলি ফার্নিচারকে। ‘দামে কম, মানে ভালো…’ হয়ে উঠেছে নেট দুনিয়ার নতুন অ্যান্থেম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

আমার স্কুল: পাথরপ্রতিমা আনন্দলাল আদর্শ বিদ্যালয়

ইন্দ্রস্কুল প্রায় সবারই কাছেই প্রিয়। স্কুল এমনই একটি জায়গা যেখানে জীবনের শুরুর দিকে একটা বড় অংশ আমরা কাটাই, অনেক নতুন বন্ধু তৈরি...

ঘোড়ামারা: অভিশাপ না প্রশাসনিক অবহেলা? ক্ষয়িষ্ণু দ্বীপে ভাসমান কিছু প্রশ্ন

বিশেষ প্রতিবেদন লিখেছেন প্রত্যয় চৌধুরীজমি নেই, ঘর নেই, বাড়ি নেই। চারিদিকে শুধু জল আর জল! প্রকৃতি যে এরকম নিষ্ঠুর হতে পারে, তা...

নরহরিপুরে ত্রাণ বিলি

দুই সপ্তাহ হতে চলল, এখনও ইয়াস বিধ্বস্ত সমস্ত এলাকায় ক্ষয়ক্ষতিপূরণ পৌঁছায়নি। দক্ষিণ ২৪ পরগণার বেশ কিছু এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে এখনও বিতরণ করা...

ইয়াস: ক্ষতিগ্রস্ত ঘোড়ামারা, পাথরপ্রতিমা বাজারেও ঢুকেছে জল

আম্ফানের পরেই একটি বিধ্বংসী ঝড়ের সাক্ষী হল সুন্দরবন। গত বছরের আম্ফানের মতো এবারও সাইক্লোন ইয়াসে অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। নদীবাঁধ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।সুন্দরবনের...

Recent Comments

error: Content is protected !!