প্রচারের আড়ালে থেকেই তিনি সাহায্য করতে পছন্দ করেন

১০৪ Views

তরুণ। উচ্চশিক্ষিত। কর্ম জগতে প্রতিষ্ঠিত। বিদেশে চাকরি করেন। তবুও দেশের কথা ভোলেননি। করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ সমগ্র দুনিয়ায় তাণ্ডব সৃষ্টি করেছে। লক্ষাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা রোজ বাড়তে। ভারতেও একই অবস্থা। করোনার প্রকোপ দেখা দেওয়ার পর থেকেই কাজ সামলানোর পাশাপাশি অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে আপ্রাণ চেষ্টা করছেন কুয়েতের এক বাঙালি যুবক। আদতে তিনি পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা। তবে এখন কর্মসূত্রে কুয়েতে থাকেন।

কুয়েতের একটি ইঞ্জিনিয়ারিং সংস্থায় উচ্চপদস্থ ওই আধিকারিক নিজের নাম প্রকাশ করতে চান না। হোয়াটসঅ্যাপে কথোপকথনের সময় তিনি বলেন, বিপদের সময় আমরা এখন কাজ করি। প্রচার পরে হবে।

তিনি ঠিক এইরকমই। প্রচারের আড়ালে থেকেই কাজ করতে ভালোবাসেন। দৈনিক সুন্দরবনের একটি প্রতিবেদন থেকে তিনি জানতে পারেন, পাথরপ্রতিমার কয়েকজন যুবক লকডাউনের মাঝে কেরলে বিপাকে পড়েছেন। তাদের কাছে মাত্র শ পাঁচেক টাকা রয়েছে। খাবার কেনার পর্যাপ্ত টাকা নেই। গ্যাস ফুরিয়ে যাওয়ায় তারা জঙ্গল থেকে কাঠ কেটে রান্নার ব্যাবস্থা করছেন। এই খবর চোখে পড়ার পরই স্থির থাকতে পারেননি ওই যুবক। তিনি সঙ্গে সঙ্গে যোগাযোগ করেন দৈনিক সুন্দরবন ডট কমের সঙ্গে। তার আর এক সহকর্মীর সাহায্যে তিনি কেরলে যোগাযোগ করেন। স্থানীয় প্রশাসনের তরফ থেকে কোনো সাহায্য পাওয়া যায় কি না, সেই চেষ্টাও করেন। তবে সেসবের জন্য তিনি অপেক্ষা করে বসে থাকেননি। শুক্রবার জুম্মার নমাজ আদায় করার পরই কেরলে আটক মোট ৬ জন যুবকের জন্য ৬,০০০ টাকা অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দেন। সেই সঙ্গে তিনি জানান, এরকম আরও কোনো মানুষ যদি কোথাও বিপাকে পড়েন, সেই সম্পর্কে বিশদ আমাকে জানান। আমরা সাধ্যমতো সাহায্য করব। তবে শুধু এখন নয়, সর্বদাই মানুষের পাশে থাকেন এই বাঙালি যুবক। উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার বাসিন্দ সমাজসেবী করিমুল হককে সম্প্রতি তিনি বিপুল আর্থিক সাহায্য করেছেন বলে জানিয়েছেন। তার একটাই লক্ষ্য, মানুষ বিপদে পড়লে যেন তাদের পাশে একটু দাঁড়ানো যায়। এখন আল্লাহ, ভগবান, গড – সমস্ত ভেদাভেদ ভুলে এক হয়ে লড়াই করার সময়। প্রবাসী বাঙালির এই আর্থিক সাহায্য পেয়ে বেজায় খুশি সুন্দরবনের ওই ছয় যুবক। তারা বলেন, ফের একবার প্রমাণিত হল যে এই পৃথিবীতে এখনও মানবতার মৃত্যু হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!