বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১৫, ২০২১
Home sports করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশেষ বার্তা দিলেন শচীন

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে বিশেষ বার্তা দিলেন শচীন

২৬৪ Views

দৈনিক সুন্দরবন ডেস্ক

করোনাভাইরাস এখন গোটা বিশ্বে তীব্র আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। মৃতের সংখ্যা ইতিমধ্যে ১৮,০০০ ছাড়িয়ে গিয়েছে। আক্রান্ত প্রায় তিন লক্ষ মানুষ। ভারতেও আক্রান্তের সংখ্যা ধীরে ধীরে বাড়ছে। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০০-এরও অধিক। উদবেগের বিষয় হল, এই সংখ্যাটা প্রায় প্রতি মুহূর্তে বাড়ছে। এছাড়া কোভিড-১৯ এ ভারতে ইতিমধ্যে ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় বুধবার মধ্যরাত থেকে ভারতে জারি হয়েছে ২১ দিনের লকডাউন। করোনাভাইরাসের প্রকোপের পর বিশ্বের সমস্ত ক্রীড়া প্রতিযোগিতা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এখন প্রায় সব দেশের সরকারের তরফ থেকে জনগণকে বাড়িতে থাকার আবেদন করা হচ্ছে। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসকে জব্দ করতে যতদিন না কোনো ভ্যাকসিন বা ওষুধ আবিষ্কার করা হচ্ছে, ততদিন এই ভাইরসা থেকে বাঁচার এটাই শ্রেষ্ঠ উপায়।

মঙ্গলবার রাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি লকডাউন ঘোষণা করার পরই একাধিক ক্রিকেটার এই বার্তাকে সমর্থন করে এগিয়ে এসেছেন। এবার ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার শচীন তেন্ডুলকর একই মন্তব্য করলেন। বুধবার তিনি জনগণের উদ্দেশ্যে বলেন, অনুগ্রহ করে বাড়ির মধ্যে থাকুন। বাড়ির বাইরে যাবেন না। সরকারের নির্দেশ মেনে চলুন।

ট্যুইটারে ভিডিও আপলোড করে আবেদন করলেন শচীন

করোনাভাইরাস নিয়ে মানুষের মধ্যে সচেতনতা গড়ে তুলতে ভারতের ক্রিকেট ভগবান হিসেবে পরিচিত শচীন তেন্ডুলকর Sachin Tendulkar তার ট্যুইটার হ্যান্ডল থেকে একটি ভিডিও আপলোড করেন। তিনি বলেন, মানুষকে বুঝতে হবে যে এটা ছুটি কাটানোর সময় নয় যে মানুষ বাইরে বেরিয়ে অন্যান্যদের সঙ্গে দেখা করবেন। ৪৭ বছর বয়সী এই ক্রিকেটারের কথায়, আমাদের সরকার এবং বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এখন আমাদের বাড়িতে থাকতে হবে। খুব জরুরি কোনো প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে পা না রাখাই ভালো। তবে কেউ কেউ বিষয়টা সিরিয়াসলি নিচ্ছেন না। আমি এমন কিছু ভিডিও দেখেছি যেখানে অনেকে বাইরে ক্রিকেট খেলছেন।সবার ইচ্ছে করে বাইরে গিয়ে বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে দেখা করতে। কিন্তু এখন সেটা করার সময় নয়। এটা এই মুহূর্তে গোটা দেশের জন্য অত্যন্ত বিপজ্জনক ব্যাপার। মনে রাখবেন, এটা ছুটি কাটানোর সময় নয়। করোনাভাইরাসে যদি আমাদের দেশে পৌঁছে থাকে, তাহলে সেটা আমাদের জন্যই। চিকিৎসক, নার্স এবং মেডিকেল প্রফেশনাল, যারা আমাদের জন্য তাদের জীবন ঝুঁকির মধ্যে ফেলছেন, তাদের জন্য আমাদের বাড়িতে থাকা উচিত। আমি এবং আমার পরিবার গত ১০ দিন ধরে কোনো বন্ধুর সঙ্গে দেখা করিনি। আগামী ২১ দিন ধরে আমরা তাই করব। বাড়িতে থেকে আমরা নিজেদের এবং আমাদের পরিবারকে বাঁচাতে পারব। এছাড়া করোনাভাইরাস প্রতিরোধের জন্য প্রয়োজনীয় সহায়তা করতে পারব।

মঙ্গলবার রাতে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, করোনাভাইরাসকে শক্ত হাতে দমন করার জন্য লকডাউন একটি জরুরি পদক্ষেপ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

স্যামসনের অবিশ্বাস্য ব্যাটিং, তবুও শেষ হাসি হাসল পাঞ্জাব

স্কোরবোর্ড বলছে, আইপিএল ২০২১-এর চতুর্থ ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসকে ৪ রানে হারিয়ে দিয়েছে পাঞ্জাব কিংস। তবে সেটা দেখে ম্যাচের আসল ছবি বোঝা যাবে...

ধর্নায় বসবেন মমতা

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক প্রচারের উপর 24 ঘন্টার নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন। এই নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। সেই...

মানুষ মরে এভাবেই, কেউ খোঁজ রাখে না

বিশ্বজিৎ মান্না ধরুন আপনি সকালে ঘুম থেকে উঠে, বাজারের থলে হাতে নিয়ে বেরোলেন। আপনার বাড়ির লোক বা আপনি কী...

ফের ক্ষমতায় দিদি, তবে বিজেপির আসন বাড়বে: বলছে সমীক্ষা

বিগত কয়েক বছরে পশ্চিমবঙ্গে অন্যতম বিরোধী দল হিসাবে বিজেপি নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছে। কেন্দ্রের শাসক দলের দাবি, রাজ্যে এবার তারাই ক্ষমতায় আসতে চলেছে।...

Recent Comments

error: Content is protected !!