বুধবার, মার্চ ৩, ২০২১
Home District পাথরপ্রতিমা ফরেস্ট জেটিঘাটের বেহাল অবস্থা

পাথরপ্রতিমা ফরেস্ট জেটিঘাটের বেহাল অবস্থা

৪৪১ Views

অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা সুন্দরবনের প্রধান সমস্যা। মূলত যোগাযোগ ব্যবস্থার অভাবেই এখনও সুন্দরবনে পর্যটন প্রত্যাশা অনুযায়ী ডানা মেলতে পারেনি। বছরের কয়েক মাস ছাড়া সুন্দরবনে পর্যটকদের দেখাই যায় না। নদী ঘেরা সুন্দরবনের সব প্রান্তের সঙ্গে সড়কপথে যোগাযোগ নেই। এর ফলে শুধু পর্যটকরাই নন, স্থানীয় বাসিন্দাদেরও নানা সমস্যার মুখে পড়তে হয়।

এরকমই একটি নিদর্শন হল দক্ষিণ ২৪ পরগনার কাকদ্বীপ মহকুমার পাথরপ্রতিমা ফরেস্ট ঘাট। দক্ষিণ শিবগঞ্জ মৌজার অন্তর্গত এই জেটিঘাটের অন্যদিকে রয়েছে তালপাতার ঘাট। কার্জন ক্রিক নদীর এই জেটি ঘাট বহুদিন ধরে বেহাল অবস্থায় পড়ে রয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, প্রায় পাঁচ বছর ধরে এই জেটিঘাট বেহাল অবস্থায় পড়ে থাকলেও প্রশাসনের তরফ থেকে কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে না। পাথরপ্রতিমা গ্রাম পঞ্চায়েতকেও বিষয়টি জানানো হয়েছে। তাতেও কোনো সুরাহা হয়নি। রাক্ষসখালি এবং পাথরপ্রতিমার মধ্যে যোগাযোগ রক্ষাকারী এই মূল জেটিঘাট কাঠ দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। ফলে জোয়ারের সময় এই জেটি ব্যবহার করা প্রায় অসম্ভব হয়ে যায়।

রাক্ষসখালি গ্রামের বাসিন্দা শুভ্রশঙ্খ জানা সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে ফেসবুকে সরব হয়েছেন। বেহাল জেটির একটি ছবি তিনি ফেসবুকে পোস্ট করে লিখেছেন, ফেসবুক বন্ধুদের বলব, এই ছবিটা একটু শেয়ার করুন। কারণ রাক্ষসখালি থেকে পাথরপ্রতিমা যাওয়ার এই মূল জেটি ব্যবহার করতে জনসাধারণের খুব অসুবিধা হয়। তাই এই পাথরপ্রতিমার এই ফরেস্ট ঘাটটির অবিলম্বে উন্নতি প্রয়োজন।

দৈনিক সুন্দরবনের তরফ থেকে শুভ্রশঙ্খ বাবুর সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, স্থানীয় বাসিন্দা সহ অনেকেই কার্জন ক্রিক নদী পেরোতে গিয়ে সমস্যায় পড়েন। রোগী, স্থানীয় বাসিন্দা, স্কুলের ছাত্রছাত্রী সহ অনেকের কাছেই ভরসা এই জেটিঘাট। বিষয়টি নিয়ে পাথরপ্রতিমা গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছিল। তিনি সমস্যার সমাধানের আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্তুতে পরে কাজের কাজ কিছুই হয়নি। তিনি আরও বলেন, পারাপারের সমস্যা। জল কমে গেলে যাওয়া যায় না। কাদা পেরিয়ে যেতে হয়। জোয়ারের সময় সমস্যা নেই। ভাটা হলে সমস্যা হয়। অনেকের জীবন জীবিকা এই জেটিঘাটের উপর নির্ভরশীল।

এদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের পাথরপ্রতিমা অঞ্চল কমিটির সম্পাদক তথা রাজ্যের শাসক দলের ছাত্র সংগঠন তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ব্লক সভাপতি সরোজ মাইতি বলেন, নদীর চর পড়ে যাওয়ায় এই সমস্যা দেখা দিয়েছে। এখানে বিশেষ কিছু করার নেই।

এই ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানার জন্য পাথরপ্রতিমা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সঞ্জয় নায়েকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। তবে তিনি ফোন না ধরায় তার বক্তব্য জানা যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

ফের অস্বস্তিতে বঙ্গ বিজেপি, কোকেন কাণ্ডে এবার গ্রেফতার রাকেশ সিং

মাদক মামলায় গ্রেফতার করা হল বিজেপি নেতা রাকেশ সিংকে। মঙ্গলবার গভীর রাতে পূর্ব বর্ধমানের গোলসি থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এছাড়া পুলিশের...

কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের থাবায় দুই মৎসজীবী

সুন্দরবনে ফের রয়্যাল বেঙ্গলের আক্রমণ। গত বুধবার রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের আক্রমণে এক মৎসজীবী গুরুতর আহত হয়েছে। আর একজনের মৃত্যু হয়েছে বলে আশঙ্কা...

পুদুচেরির লেফটেন্যান্ট গভর্নরের পদ থেকে সরানো হল কিরণ বেদিকে

পুদুচেরির লেফটেন্যান্ট গভর্নরের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল কিরণ বেদিকে। মঙ্গলবার রাতে রাষ্ট্রপতি ভবনের তরফ থেকে এই খবরের সত্যতা স্বীকার করা হয়েছে।...

রাধুবাবুর মাটন বা চিকেন কোর্মা ট্রাই করতেই হবে!

গৌরব মুখার্জীআমাদের কলকাতা, যে কলকাতা তিনটে গ্রাম নিয়ে তৈরী হয়েছিল আজ সেই শহর আকারে আয়তনে রোজ একটু একটু করে বড় হচ্ছে তো...

Recent Comments

error: Content is protected !!