শুক্রবার, নভেম্বর ২৭, ২০২০
Home District উইকএন্ড ট্রিপের জন্য আদর্শ ভগবতপুর কুমির প্রকল্প

উইকএন্ড ট্রিপের জন্য আদর্শ ভগবতপুর কুমির প্রকল্প

৪১৭ Views

দৈনিক সুন্দরবন ডেস্ক

সুন্দরবনে পর্যটকদের অন্যতম প্রিয় গন্তব্য হয়ে উঠেছে ভগবতপুর কুমির প্রকল্প। কলকাতা তো বটেই, দেশ-বিদেশের বিভিন্ন প্রান্তের পর্যটকরা শুধুমাত্র সুন্দরবনের কুমির দেখার জন্য এখানে আসেন। সত্তরের দশকের মাঝামাঝি এই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। প্রসঙ্গত, এটিই হল পশ্চিমবঙ্গের একমাত্র কুমির প্রকল্প। মূলত সুন্দরবনের নদীগুলিতে কুমিরের সংখ্যা বৃদ্ধি করার প্রাথমিক লক্ষ্য নিয়ে পথ চলা শুরু করে এই প্রকল্প। উদবোধনের পর তিন দশকেরও বেশি সময় অতিবাহিত হলেও এখনও অন্ধকারে ডুবে রয়েছে ভগবতপুর।

সমগ্র সুন্দরবনের মতো এখানেও পর্যটনের জন্য উপযুক্ত পরিকাঠামো গড়ে ওঠেনি। দীর্ঘদিনের দাবির পর কলকাতার সঙ্গে সড়কপথে সরাসরি যোগাযোগ স্থাপিত হয়েছে। কিন্তু ওই পর্যন্তই, তার বাইরে এলাকায় পর্যটনের প্রসারে বিশেষ সরকারি উদ্যোগ চোখে পড়েনি। উইএন্ডে ঘুরে আসার জন্য একটি অন্যতম গন্তব্য হল ভগবতপুরের কুমির প্রকল্প।

কিভাবে যাবেন

ট্রেনপথ- সুন্দরবনের সমস্ত জায়গায় সরাসরি রেল যোগাযোগ গড়ে ওঠেনি। ভগবতপুরের নিকটবর্তী রেলস্টেশন হল কাকদ্বীপ। শিয়ালদা দক্ষিণ শাখা থেকে কাকদ্বীপ যাওয়ার অনেক ট্রেন রয়েছে। কাকদ্বীপ থেকে পাথরপ্রতিমা বাজার যাওয়ার বাসে উঠতে হবে। পাথরপ্রতিমা বাজার থেকে গাড়ি বুক করে কিংবা মোটরভ্যানে করে ভগবতপুর কুমির প্রকল্পে পৌঁছে যাওয়া যায়। পাথরপ্রতিমা বাজার থেকে ভগবতপুর কুমির প্রকল্প পৌঁছাতে ঘন্টা দুয়েক মতো সময় লাগবে।

সড়কপথে- সড়কপথে সরাসরি ভগবতপুরে পৌঁছানো যায়। ধর্মতলা থেকে যদি যাত্রা শুরু করেন তাহলে তারাতলা বা বেহালা হয়ে ডায়মন্ড হারবার রোড ধরতে হবে। এই রাস্তা ধরে সোজা ১১৭ নম্বর জাতীয় সড়ক দিয়ে এগোতে হবে। কাকদ্বীপের কাছে যাওয়ার পর বাঁদিকে গঙ্গাধরপুর যাওয়ার রাস্তায় টার্ন নিতে হবে। এই রাস্তায় সোজা পৌঁছে গেছে ভগবতপুর কুমির প্রকল্পে। ধর্মতলা থেকে যাত্রা শুরু করলে মোটামুটি ঘন্টা চারেকের মধ্যে সরাসরি লোথিয়ান দ্বীপের নিকটে অবস্থিত এই পর্যটন কেন্দ্রে পৌঁছানো যায়।

কি দেখবেন

নাম থেকেই স্পষ্ট, এখানে মূলত কুমির দেখা যায়। কুমিরের হ্যাচারি রয়েছে এখানে। পূর্ণবয়স্ক কুমিরের মুখে ক্লিপ পরিয়ে নদীতে ছেড়ে দেওয়া হয়। ক্লিপ এমনভাবে পরানে হয় যাতে কুমির কেবলমাত্র খাবার খাওয়ার জন্য যতটুকু মুখ খোলা প্রয়োজন, ততটুকুই খুলতে পারে। মানুষকে আক্রমণ করার জন্য যতটা মুখ খোলা দরকার সেটা যাতে কুমির না করতে পারে সেই কথা মাথায় রেখে ক্লিপ পরানো হয়।

কুমির ছাড়াও এখানে এক সময় হরিণ ছিল। তবে এখন ভগবতপুর কুমির প্রকল্পে হরিণ দেখা যায় না। ভগবতপুর কুমির প্রকল্পে কুমিরের জীবনচক্র বিশদে ব্যাখ্যা করার জন্য একটি ইন্টারপ্রিটেশন সেন্টার রয়েছে। এখানে কুমিরের বোতলবন্দি ডিম দেখতে পাবেন।

প্রকল্পের আশেপাশে ঘন জঙ্গল রয়েছে। অনুমতি ছাড়া এই জঙ্গলে প্রবেশ না করাই ভালো। এখানে সচরাচর বাঘ দেখা না গেলেও বুনো শুয়োর ঘোরাফেরা করে। তবে কুমির প্রকল্পের পাশে খেয়াঘাটে বসে থাকতে পারেন। যারা নির্জন জায়গা পছন্দ করেন, তারা এই জায়গাটি পছন্দ করতে পারেন।

কখন যাবেন

বছরের যেকোনো সময় ভগবতপুর কুমির প্রকল্পে যাওয়া যায়। তবে মূলত শরতের শুরু থেকে শীত কাল পর্যন্ত সময়কাল হল ভগবতপুর কুমির প্রকল্পে বেড়াতে যাওয়ার আদর্শ সময়।

কোথায় থাকবেন

ভগবতপুর কুমির প্রকল্পের আশেপাশে থাকার কোনো হোটেল নেই। একটু দূরে কিশোরীনগর ব্রিজের কাছে একটি গেস্ট হাউজ গড়ে উঠেছে। এছাড়া পাথরপ্রতিমায় রয়েছে প্রচুর হোটেল। যারা একটু ভালো হোটেলে থাকতে পছন্দ করেন, তারা কাকদ্বীপ কিংবা বকখালির হোটেলে থাকতে পারেন। এখান থেকে ডে ট্রিপে অনায়াসে ভগবতপুর কুমির প্রকল্পে পৌঁছে যাওয়া যায়। প্রকল্পের আশেপাশে খাবারের বিশেষ ভালো হোটেল নেই। তাই সঙ্গে করে খাবার নিয়ে যাওয়াই ভালো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

মটন বিরিয়ানি থেকে লুচি-ছোলার ডাল, কলকাতার খাবারে মুগ্ধ হয়েছিলেন দিয়েগো মারাদোনা!

শুধু করোনার তাণ্ডবই নয়, নানা কারণে ২০২০ একটি ‘আনলাকি’ বছর হিসেবে ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে। এমনটাই দাবি অনেকের। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই নিয়ে...

তিলোত্তমার জীবনরেখা

মিতুন মণ্ডল দৃশ্য– ১ শহরে সবে শীতের ছোঁয়া। সাত সকালের চাঁদনির ফুটপাত। ধোঁয়া ওঠা চায়ের ভাড়ে...

কনকনে ঠান্ডায় জল কামানের সামনে দাঁড়িয়ে কৃষি আইন বাতিলের দাবি কৃষকদের

উত্তর ভারতের বিভিন্ন এলাকায় এর মধ্যেই হাড় কাঁপানো শীত পড়েছে। সেসব উপেক্ষা করে গত রাত থেকেই পাঞ্জাবে হরিয়ানা সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় জড়ো...

অস্ট্রেলিয়া বনাম ভারত ১ম ওডিআই: ভারতের সম্ভাব্য একাদশ

এবার অপেক্ষা শেষ হতে চলেছে। নয় মাসের দীর্ঘ বিরতির পর মাঠে নামছে টিম ইন্ডিয়া। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওডিআই সিরিজের প্রথম ম্যাচে শুক্রবার, ২৭...

Recent Comments

error: Content is protected !!